1. admin@matrikantha24.com : admin :
মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারী ২০২৩, ০৯:৫০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
মোগড়াপারা চৌরাস্তায় ব্যবসায়ীর দোকানে সন্ত্রাসী হামলা ও লুটপাট, আহত ১ বাচ্চু মোল্লার নেতৃত্বে ৩ হাজার নেতা কর্মীর সোনারগাঁ পৌরসভা আওয়ামী লীগ সম্মেলনে যোগদান সোনারগাঁয়ে যমুনা ব্যাংক লিমিটেড উপশাখার শুভ উদ্বোধন দক্ষিন কুরিয়ায় উইজম্বু হালকার উদ্যোগে ছংগরি মসজিদে মাসিক মাসওয়ারা সভা অনুষ্ঠিত নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনে মনোনয়ন ফরম জমা দিলেন এডভোকেট মো: ফিরোজ মিয়া সোনারগাঁ মা জেনারেল হাসপাতালে ভূল চিকিৎসায় মৃত্যু হলো ৯ বছরের শিশুর সোনারগাঁয়ের “বস্তি” খ্যাত মোগড়াপাড়া চৌরাস্তার তিন শতাধিক অবৈধ স্থাপনার উচ্ছেদ সোনারগাঁয়ে কৃষকের জমিতে শকুনির চোখ, পৈত্রিক জমি বাঁচাতে অসহায় কৃষকের ৯ বছরের লড়াই সোনারগাঁয়ে স্কুলমাঠ দখল ও গাছ কেটে রাস্তা নির্মাণের অভিযোগ পৌরসভা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে সোনারগাঁয়ে ইউপি সদস্যের মদদে কনকা গ্রুপের জন্য জোরপূর্বক স্থানীয়দের জমি দখলের অভিযোগ

বাংলাদেশি কর্মীরা কোরিয়ান মালিকদের কাছে বেশি পছন্দের,

  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ৪১৫৬ বার পঠিত

অনলাইন ডেস্কঃ

এমপ্লয়মেন্ট পারমিট সিস্টেম (ইপিএস) কর্মসূচির আওতায় মো. নাহিদ নাদিম ২০১৫ সালে চাকরি নিয়ে দক্ষিণ কোরিয়া যান। সেখানে ৪ বছর ১০ মাস সুনামের সঙ্গে কাজ করার পর ২০২০ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর দেশে ফিরে আসেন। এরপর আবার চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে দক্ষিণ কোরিয়া যাওয়ার সুযোগ পান। বর্তমানে দক্ষিণ কোরিয়ার হোয়াসংসিতে অ্যালকো স্টিল নামের একটি প্রতিষ্ঠানে সহকারী হিসেবে কর্মরত। প্রথমবার যখন কোরিয়া যান তখনো এই কোম্পানিতে চাকরি করেছিলেন তিনি।

মো. নাহিদ নাদিম প্রথম আলোকে বলেন, ইপিএস কর্মসূচির আওতায় বাংলাদেশ, ভিয়েতনাম, ফিলিপাইন উজবেকিস্তানসহ বিশ্বের ১৫টি দেশ থেকে কর্মী নিয়ে থাকে দক্ষিণ কোরিয়া। এর মধ্যে কোরিয়ানদের কাছে বাংলাদেশি কর্মীদের সুনাম রয়েছে। কারণ, অন্যদের তুলনায় বাংলাদেশি কর্মীদের কোরিয়ান ভাষা দক্ষতা ভালো। তাঁরা সহজেই কোরিয়ানদের কথা বুঝতে পারেন।

তিনি আরও বলেন, অন্যান্য দেশের কর্মীরা কোম্পানি বেশি পরিবর্তন করেন। এ জন্য কোরিয়ানরা তাঁদের কম পছন্দ করেন। বাংলাদেশি কর্মীরা দীর্ঘদিন একই প্রতিষ্ঠানে সুনামের সঙ্গে কাজ করেন, তাই বাংলাদেশি কর্মীদের নিতে তাঁরা আগ্রহী বেশি।

মো. নাহিদ নাদিম বলেন, কোরিয়ানদের ব্যবহার অনেক ভালো। তাঁরা কর্মীদের প্রতি যত্নশীল। থাকার পরিবেশ পরিচ্ছন্ন। ইপিএসের আওতায় যাঁরা দক্ষিণ কোরিয়ায় আসতে চান, তাঁদের শুধু কোরিয়ান শিখলেই হয়। অন্য কোনো কাজের অভিজ্ঞতা তেমন লাগে না। কোরিয়ানদের কাছে নিরাপত্তা আগে। ঝুঁকিপূর্ণ কাজ কর্মীদের দিয়ে করানো হয় না। যেসব কাজ ঝুঁকিপূর্ণ বলে মনে হয়, সেসব কাজ মেশিন দিয়ে করা হয়।

 

সংগৃহীত দৈনিক প্রথম আলোঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© All rights reserved © 2022 Matrikantha 24

Theme Customized By Theme Park BD
error: Content is protected !!